You are currently viewing হঠাৎ প্রেসার বেড়ে গেলে করণীয় কি?

হঠাৎ প্রেসার বেড়ে গেলে করণীয় কি?

প্রেসারের রুগী দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে। স্বাভাবিক ভাবে রক্তচাপ কেই আমরা প্রেসার বলে থাকি। প্রতিটা মানুষেরই একটি রক্তচাপ থাকে। কারো স্বাভাবিক, কারো কম আবার কারো বেশি। আজকে বিষয় হলো হঠাৎ প্রেসার বেড়ে গেলে করণীয় কি?

প্রেসার বেড়ে গেলেই আমরা অনেক ভয় পেয়ে থাকি, বুঝে উঠতে পারি না কি করবো। অনেকে আবার অনেক ভুল কাজ করে ফলে যার ফলে হেতে বিপরীত হয়ে যায়।

একটি মানুষের স্বাভাবিক রক্তচাপ হচ্ছে ১২০/৮০ মিলিমিটার। যদি স্বাভাবিকের চেয়ে রক্তচাপ বেড়ে যায় তখনই তাকে উচ্চ রক্তচাপ বা হাই প্রেসার বলে থাকে।

হঠাৎ প্রেসার বেড়ে গেলে করণীয় কি?

অনেকে আছে অনেক দুশ্চিন্তা করে বা কোন দুঃসংবাদ শুনলেই তার পেশার বেড়ে যেতে শুরু করে। তাই সর্ব প্রথম কাজ হচ্ছে দুশ্চিন্তা কমিয়ে ফেলুন, বসে পড়ুন বা বিশ্রাম নিন। যদি প্রেসার কিছুটা বাড়ে তাহলে ভয়ের কিছু নেই কিন্তু যদি প্রেশার অনেক বেড়ে যায় তাহলে আপনি যদি কোন প্রেসারের ঔষুধ খেয়ে থাকেন সেটা দ্রুত খেয়ে ফেলুন। তবে বিশ্রাম এবং দুশ্চিন্তা না করাই হলো প্রেসারের একটি বড় ঔষধ। কিন্তু প্রেসার কমে গেলে কি করবেন?

সুস্থ ব্যক্তির হঠাৎ রক্তচাপ বেড়ে গেলে তাঁকে অবশ্যই বিশ্রাম নিতে হবে।

কোন ভাবেই যদি প্রেসার না কমে থাকে তাহলে দ্রুত ডাক্তারের সাথে দেখা করুন এবং ডাক্তারের পরামর্শ মেনে চলুন।

হঠাৎ রক্তচাপ বেড়ে গেলে কী করবেন? যদি কারো রক্ত চাপ হঠাৎ খুব বেশি বেড়ে যায় তাহলে অবশ্যই বসে অথবা শুয়ে পড়তে হবে ও বিশ্রাম নিন। জরুরি অবস্থায় অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

প্রেসার নিয়ন্ত্রণে করণীয়

  • ওজন কমাতে হবে ও লবন কম খেতে হবে।
  • কোন নেশাদ্রব্য গ্রহন করা যাবে না।
  • নিয়মিত ব্যায়াম বা হাঁটা হাটি করতে হবে।
  • শাকসবজি ও বেশি বেশি মাছ খেতে হবে।
  • ডায়াবেটিস, হাইপারলিপিডেমিয়া নিয়ন্ত্রণে রাখা।
  • হাসিখুশি ও প্রফুল্ল থাকা এবং দুশ্চিন্তা না করা।
  • মানসিক অবসাদগ্রস্ততা দূর করা।
  • তেল ও চর্বিজাতীয় খাবার কম খেতে হবে।
  • মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা থেকে মুক্ত থাকতে হবে।
  • পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেওয়া।

প্রেসার কেন বেড়ে যায়?

  • পারিবারিক বা বংশগত বা জিনগত কারনে অনেকের প্রেসার বাড়ে।
  • সাধারনত বয়স বাড়ার সাথে সাথে প্রেসার বেড়ে যায়।
  • অতিরিক্ত ওজন বাড়ার কারনেও প্রেসার বাড়ে।
  • শারীরিক পরিশ্রম না করে সারাদিন শুয়ে বসে কাটালে।
  • মানসিক চাপ বা উত্তেজনা বাড়লে রক্তচাপ বেড়ে যায়।
  • তামাকজাত দ্রব্য গ্রহণ বা ধূমপান।
  • কিডনির বা থাইরয়েডের সমস্যা।
  • গর্ভাবস্থা বা প্রেগনেন্সি অবস্থায়।

এছাড়াও নানান কারনে প্রেসার বেড়ে যায়। যেমন: লবন বেশি খেলে, মদপান, ফিওক্রমসাইটোমা, এড্রেনাল গ্রন্থির ইত্যাদি কারেনও প্রেসার বেড়ে যায়।

আরো পড়ুন: আমের উপকারিতা

পরিশেষেঃ প্রেসার বা রক্তচাপ একটি নিয়মিত সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে। প্রেসার বেড়ে গেল করণীয় হলো বিশ্রাম নেওয়া এবং সম্পর্ন রেস্টে থাকা পাশাপাশি কোন দুশ্চিন্তা না করা। প্রেসার বেড়ে যায় এমন রোগীকে চিন্তা করবে বা মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পরবে এমন কোন কিছু না বলা।

যাদের নিয়মিত প্রেসার বেড়ে যায় তাদের বাসায় একটি প্রিশারের মেশিন কিনে রাখতে পারেন। প্রয়োজনে ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে প্রেসারের ঔষধ সেবন করবে পারেন। কলিকাতা হারবাল একটি হারবাল চিকিৎসা কেন্দ্র। আপনার সমস্যাগুলো জানান ডাক্তার মোঃ মাহবুবুর রহমান কে।

আরো পড়ুন – অনেক সময় সহবাসের উপায় কি?

Rate this post

This Post Has 2 Comments

  1. Next time I read a blog, Hopefully it wont fail me as much as this one. After all, Yes, it was my choice to read through, however I truly thought you would probably have something useful to talk about. All I hear is a bunch of complaining about something you can fix if you were not too busy seeking attention.

Leave a Reply