You are currently viewing লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা (খাওয়ার নিয়ম)

লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা (খাওয়ার নিয়ম)

আমরা সকলেই লবঙ্গ নামটায় পরিচিত। সাধারতন লবঙ্গ আমরা মশলার কাজে ব্যবহার করি। আজকে আমরা জানবো লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত।

লবঙ্গ তৈরী হয় গাছের ফুলের কুড়িকে শুকিয়ে। USDA এর তথ্য অনুসারে ১০০ গ্রাম লবঙ্গে ৬ গ্রাম প্রোটিন, ৬৫ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ১৩ গ্রাম টোটাললিপিড, ২ গ্রাম সুগার, ৩৩ গ্রাম ডায়েটারিফাইবার সহ ২৭৪ কিলো ক্যালোরি শক্তি থাকে। এছাড়াও বি-ডি, বি-১২, সি, এ, ই, ডি, কে, থায়ামিন, নিয়াসিন, ফোলেট ইত্যাদি আছে। লবঙ্গের উপকারিতা ও অপকারিতা বলে শেষ করা যাবে না।

চলুন তাহলে জেনে নেই লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা কি কি? বা কেন লবঙ্গ খাবেন প্রতিদিন?

লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা – Cloves Health Benefits

প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় দেখা যায় কোন না কোন ভাবে আমরা লবঙ্গ খেয়ে থাকি। কেউ চায়ের সাথে, কেউ আবার তরকারির সাথে। লবঙ্গের উপকারিতা ও অপকারিতা দুটোই আছে তবে অপকারিতার চেয়ে লবঙ্গের উপকারিতাই বেশি। তাই সর্ব প্রথম জেনে নেই লবঙ্গের উপকারিতা কি কি?

এক নজরে লবঙ্গের উপকারিতা জেনে নেই

লবঙ্গের উপকারিতা কি কি?

লবঙ্গ যে কোন বয়সের মানুষই খেতে পারে। প্রতিদিন খাদ্য তালিকায় যদি ১ থেকে ২টি লবঙ্গ রাখি আমাদের অনেক উপকারে আসবে।

১. শুক্রাণু বৃদ্ধিতে সাহায্য করে

এটা প্রমানিত যে লবঙ্গ শুক্রানু উৎপাদনে সাহায্য করে। আমাদের প্রতিদিনের অনিয়ম ও অসাস্থ্যতার জন্য আমাদের যৌন ইচ্ছা যেমন কমে যাচ্ছে তেমনি শুক্রাণুর সংখ্যাও কমে যাচ্ছে। যাদের এমন সমস্যা আছে তারা লবঙ্গ খেতে পারেন।

২. উচ্চ রক্ত চাপের ঝুঁকি কমায়

এটা প্রমানিত যে লবঙ্গ খেলে যাদের উচ্চ রক্ত চাপের সমস্যা আসে তাদের রক্ত চাপ কমাতে সাহায্য করে। যাদের উচ্চ রক্ত চাপ তারা প্রতিদিন লবঙ্গ খেলে সুস্থ বোধ করবেন।

আরো পড়ুন – হঠাৎ প্রেসার বেড়ে গেল করনীয় কি?

৩. যৌন ইচ্ছা বাড়াতে সাহায্য করে

অনেক পুরুষ আছে যাদের যৌন ইচ্ছা কম বা যৌন শক্তি নেই তারা যদি লবঙ্গ খায় তাহলে যৌন ইচ্ছা বাড়বে। যৌন ক্ষমতা বাড়াতে লবঙ্গ অত্যান্ত কার্যকারী একটি সমাধান।

আরো পড়ুন – অনেক সময় সহবাস করা উপায়

৪. ডায়াবিটিস নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে

গবেষনায় দেখা গেছে, লবঙ্গ ডায়াবিটিস নিয়ন্ত্রণ রাখে। লবঙ্গে উচ্চ অ্যান্টিহাইপারগ্লাইসেমিক, হেপাটোপ্রোটেকটিভ, হাইপোলিপিডেমিক এবং অ্যান্টিঅক্সিডেটিভ রয়েছে। যা আমাদের শরীরের জন্য অত্যান্ত জরুরী।

৫. দাঁতের ব্যথা কমাতে

দাঁতের ব্যথা কমাতে বা মাড়ির ক্ষয় দূর করেত লবঙ্গের তুলনা নেই। হঠাৎ দাতে ব্যথা করলে লবঙ্গ খেলে দাঁতের যন্ত্রনা দ্রুত চলে যাবে। এছাড়াও দাঁতের দুর্গন্ধ দূর করতেও সাহায্য করে।

৬. বমি বমি ভাব দূর করে

বাসে বা ট্রেনে কিংবা হঠাৎ যদি বমি বমি ভাব হয় দ্রুত একটি লবঙ্গ মুখের মধ্যে নিয়ে চুষলে বমি বমি ভাব দ্রুত চলে যাবে। যারা এ সকল সমস্যায় ভুগছেন তারা কোথাও গেলে একটি বা দুইটি লবঙ্গ সাথে নিয়ে যাবেন।

৭. সর্দি, কাশি বা ঠান্ডা কমায়

বহু বছর ধরে প্রচলিত যে লবঙ্গ খেলে সর্দি-কাশি বা ঠান্ডা কমে যায়। গবেষনায় এর সত্যতা পাওয়া গিয়েছে। ঠান্ডা কিংবা কাশি হলে লবঙ্গের রস চিবিয়ে খেলে ভাল হয়ে যায়।

৮ মাথা ব্যথা কমাতে সাহায্য করে

ঠান্ডা হলে মাথা ব্যথা বা রোদ, ধোঁয়া নানান কারনে মাথা ব্যথা হয়ে থাকে। মাথা ব্যথা কমানে লবঙ্গের উপকারিতা অনেক।

৯. খাবারের রুচি বৃদ্ধি করে

খাবারে অরুচি আমাদের প্রতিদিনের সমস্যা। এমন অনেকেই আছে যাদের খাবারে রুচি নেই তারা লবঙ্গ খেতে পারেন দেখবেন আবার খাবারে রুচি ফিরে এসেছে।

১০. ক্যান্সার প্রতিরোধ করে

লবঙ্গ ব্রেস্টক্যান্সার, ওভারিয়ান ক্যান্সার প্রতিরোধ করে থাকে। ক্যান্সার প্রতিরোধে কি কি খাবেন?

এছাড়াও লবঙ্গের উপকারিতা অনেক আছে যেমন: ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে, সাইনাস ইনফেকশনের প্রকোপ কমায়, পেট ফাঁপা ও পেটের অসুখ উপসম করে, স্ট্রেস ও উৎকণ্ঠা কমায়, রক্ত পরিশোধন করে,জ্বরের প্রকোপ কমায়, হাড় শক্ত করে ইত্যাদি। লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা দুটোই জেনে রাখা ভালো। এখন জানবো লবঙ্গের অপকারিতা কি কি?

এক নজরে লবঙ্গের অপকারিতা জেনে নেই

লবঙ্গের অপকারিতা কি কি

প্রতিটা জিনিসের যেমন ভালো দিক আছে তেমনি তার খারাপ দিকও আছে। লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা আছে। সঠিক নিয়মে খেলে উপকারিতাই বেশি। এখন জেনে নেই লবঙ্গের অপকারিতাগুলো কি কি?

  • অতিরিক্ত পরিমানে লবঙ্গ খেলে শরীরের রক্ত পাতলা হয়ে যেতে পারে।
  • লবঙ্গের তেল বেশি ব্যবহার করতে এলার্জি হতে পারে।
  • শিশুদের লবঙ্গ অতিরক্ত ব্যবহারে খিঁচুনি হতে পারে।
  • অতিরিক্ত পরিমাণে লবঙ্গ খেলে হাইপোগ্লাইসেমিয়ার মতো সমস্যা হতে পারে।

যেকোন হারবাল চিকিৎসায় যোগাযোগ করুন কলিকাতা হারবালঅথবা ফোন করুনঃ 01763663333

আজকের আর্টিকেল লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা পড়ে আপনারা কি কি জানলেন মতামত জানাতে ভুলবেন না।

Rate this post

Leave a Reply