You are currently viewing জেনে নিন মুলার উপকারিতা ও অপকারিতা

জেনে নিন মুলার উপকারিতা ও অপকারিতা

মুলা শীতকালিন একটি সবজি। তবে মুলা কম বেশি সব সময় পাওয়া যায় তবে শীতের দিনে মুলার উৎপাদন এবং চাহিদা অনেক বেশি। আজকে জানবো মুলার উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত।

মুলার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, সোডিয়াম এবং ভিটামিন সি রয়েছে। মুলা আমরা অনেক পছন্দ করি না আবার অনেকের কাছে মুলার অনেক মজাদার খাবার। আপনি হয়তো জানেন না মুলার উপকারিতা কি কি তাহলে আজকে থেকেই মুলা খাওয়া শুরু করে দিবেন। চলেন প্রথমে জেনে নেই মুলার উপকারিতা কি এর পরে জানবো মুলার অপকারিতা।

কলিকাতা হারবাল, kolikata herbal

মুলার উপকারিতা ও অপকারিতা বা কেন মুলা খাবেন

অনেক ধরনের মুলা আমাদের দেশে পাওয়ার যায়। নীচে মুলার স্বাস্থ্য গুন ও উপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো। মুলা আমাদের দেহের জন্য খুবই উপকারী।

মুলা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে

মুলা আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বিশেষ ভুমিকা রাখে। অনেকের কাছে মুলার গন্ধ পছন্দ না কিন্তু মুলায় থাকা পুষ্টিগুন আমাদের শরীরের জন্য খুব উপকারী।  

শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা দূর করে

মুলার মধ্যে অ্যান্টি-কনজিস্টেটিভ শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা দূর করে। তাই যাদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা তারা নিয়মিত খাবার তালিকায় মুলা খেতে পারেন।

ওজন কমাতে সাহায্য করে

আমরা হয়তো জানি না যে মুলা খেলে ওজন কমে। মুলায় থাকা পুষ্টি উপাদান শরীরের ওজন কমাতে সহায়তা করে।

জন্ডিসে মুলার উপকারিতা

জন্ডিসের জন্য মুলা খুবই কার্যকর  একটি সবজি। জন্ডিস সমস্যার জন্য মূলার রস খুবই ভাল।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রন করতে সাহায্য করে

মুলায় থাকা পটাশিয়াম যা আমাদের রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রন রাখতে সাহায্য করে। যাদের এই ধরনের সমস্যা আছে তারা নিয়মিত খাবারে মুলা রাখতে পারেন।

আরো পড়ুন – প্রেসার বেড়ে গেলে করণীয়

ভিটামিনের ঘাটতি পূরন করে

মুলা খেলে ভিটামিনের ঘাটতি পুরন হয়। মুলায় ভিটামিনের পরিমাণ যেমন বাড়তে থাকে, তেমনি আয়রন, ক্যালসিয়াম এবং ফলিক অ্যাসিডের ঘাটতিও দূর হয়। এর ফলে ছোট ছোট রোগগুলো আমাদের হানা দিতে পারবে না।

ক্যানসার দূর করে সাহায্য করে

ক্যানসার একটি মারাত্মক প্র্রানঘাটি রোগ। সেই ক্যানসার দূর করতে মুলার ভূমিকা আছে।

হার্টের স্বাস্থের উন্নতি করে

মুলায় থাকা উপাদান হার্ট ভালো রাখে। ফলে হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে না।

আরো পড়ুন – লবঙ্গ উপকারিতা ও অপকারিতা

জেনে নেই মুলার অপকারিতা

মুলার যেমন আছে অনকে উপকারিতা তেমনি আছে অপকারিতাও। তবে অপকারিতার চেয়ে উপকারিতাই বেশি। মুলা আমাদের শরীরের জন্য অনেক উপকারী তা তো আমরা এতক্ষন জানলাম। কিন্তু মুলা খাওয়ার ব্যাপারে আছে কিছু সতর্কতাও।

যদি আমরা অতিমাত্রায় মুলা খাই তাহলে আমাদের শরীরে অনেক বেশি জল হারাতে বাধ্য করতে পারে। এছাড়াও আমাদের শরীরের পানি শূন্যতাও দেখা দিতে পারে বলে গবেষনায় জানা যাচ্ছে। অনেক সময় এটি আমাদের কিডনির ওপর আঘাত আনতে পারে বা চাপ তৈরী করতে পারে।

যদি আপনি উচ্চ রক্তচাপের ঔষধ খেয়ে থাকেন তাহলে আপনার ডায়েটে মুলা না খাওয়ার ভালো। যাদের থাইরয়েডের সমস্যা আছে তাদের কাঁচা মুলা না খাওয়াই ভালো। আবার মুলা থাইরয়েড গ্রস্থির ক্ষতি করতে পারেন। সব চেয়ে ভালো হয় আপনার যদি পূর্বে থেকে কোন রোগ থাকে তাহলে ডাক্তারের সাথে আগে কথা বলে নেওয়া উচিত। অনেক সময় কিছু কিছু খাবার সবার জন্য উপকারী নাও হতে পারে।

মুলার উপকারিতা ও অপকারিতা পরে আপনার কেমন লেগেছে বা কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করুন।

আরো পড়ুন – আমের উপকারিতা ও অপকারিতা

5/5 - (5 votes)

Leave a Reply