You are currently viewing সজনে পাতার উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন

সজনে পাতার উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন

বাংলাদেশের প্রায় সব জায়গাতেই  কম বেশি সজনে গাছ দেখা যায়। আমরা সবাই কম বেশি সজনে গাছ চিনি , কিন্তু এর উপকারিতা সম্বন্ধে আমাদের কোনো জ্ঞান নেই। আমরা অনেকেই জানি না সজনে পাতার উপকারিতার কথা।

সজনে গাছের পাতাকে বলা হয় অলৌকিক পাতা। সজনে গাছের ফুল বা ডাটা থেকে পাতার পুষ্টিগুনে এবং উপকারিতা অনেকটাই বেশি।  সজনে পৃথিবীর সবথেকে পুষ্টিকর হার্ব। গবেষকরা সজনে পাতাকে বলে থাকেন ,নিউট্রিশন সুপার ফুড। সজনে পাতা শরীরের জন্য খুবই উপকারি। সজনে পাতাকে পুষ্টির আধার নামেও উল্লেখ করা হয়ে থাকে।  সজনে পাতার উপকারিতা সম্বন্ধেই আজকের  আলোচনা। আসুন তাহলে জেনে নেই সজনে পাতার উপকারিতা কি কি।

সজনে পাতার গুনাগুন :  নিরামিষভোগীরা সজনের পাতা থেকে সবচেয়ে বেশি ‍উপকৃত হতে পারেন। বিজ্ঞানীরা মনে করেন ,সজনে পাতা সকল পুষ্টিগুনের আঁধার। প্রতি গ্রাম সজনে পাতায় একটি কমলার চেয়ে ৭ গুন বেশি ভিটামিন ‘সি’ রয়েছে। গাজরের চেয়ে ৪ গুন বেশি ভিটামিন ‘এ ‘ এবং কলার চেয়ে ৩ গুন বেশি পটাশিয়াম বিদ্যমান রয়েছে। আরো আছে দুধের থেকে ৪ গুন বেশি ক্যালসিয়াম ও ২ গুন বেশি প্রোটিন। সজনে পাতা রক্তস্বল্পতা , অন্ধত্ব সহ বিভিন্ন ভিটামিন ঘাটতি জনিত রোগের বিরুদ্ধে হাতিয়ার হিসেবে বিশেষ কাজ করে।

ঔষধি গুনাগুন : আয়ুর্বেদিক শাস্ত্র মতে , সজনে গাছ প্রায় ৩০০ ধরনের রোগ থেকে মানুষকে রক্ষা করে। আধুনিক বিজ্ঞান ও তাদের এ ধারনাকে সমর্থন করেন। সজনের ডাটা সবজি হিসেবে সবথেকে বেশি ব্যবহার হয়ে থাকে। সজনের পাতা, ফুল , ফল , বীজ , শিকর –বাকল এমনকি আঠাতে ও ঔষধিগুন রয়েছে। কোলেস্টরলের লেভেল কমিয়ে হজম শক্তি বৃদ্ধি করে ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। ডায়রিয়া , কলেরা , আমাশয় , কোলাইটিস একং জন্ডিসের সময় ব্যাপক কার্যকরী ভূমিকা পালন করে সজনে পাতা। কাঁচা পাতার রস শরীরের জন্য আরো বেশি উপকারী।

সজনে পাতার উপকারিতা

লিভারকে সুস্থ রাখে: লিভার মানুষের শরীরের খুবই গুরুত্বপূর্ন একটি অঙ্গ। আমরা প্রতিদিন যে সব ওষুধ খেয়ে থাকি তার বেশিরভাগই লিভার ও কিডনির ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে থাকে। সজনে পাতা লিভারের এই ক্ষতিগ্রস্ততা কমিয়ে লিভারকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

হাড় ও দাঁতকে সবল রাখে : সজনে পাতায় প্রচুর পরিমানে ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস রয়েছে যা হাড় ও দাঁত গঠনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ন উপাদান। প্রতিদিন একজন মানুষের শরীরে যে পরিমান ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস প্রয়োজন তা ১০০ গ্রাম সজনে পাতা থেকে পাওয়া যায়।

নিরামিষভোজী : আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা প্রানিজ আমিষ জাতীয় খাবার বর্জন করে চলেন, তাদের জন্য ক্যালসিয়াম ও ফসফরাসের উৎস হিসেবে সজনে পাতা একটি ভালো খাবার হতে পারে।

রক্তে কোলেস্টরল এর মাত্রা কমায় : রক্তে খারাপ কোলেস্টরল বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথেই শরীরে বিভিন্ন রোগ বাসা বাধে। যেমন , হার্ট এর রোগ , উচ্চরক্তচাপ , স্ট্রোক ,করোনারি আর্টারি ইত্যাদি রোগের ঝুঁকি বাড়তে থাকে। সজনে পাতা রক্তে খারাপ কোলেস্টরল কমাতে খুবই গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করে। গবেষকরা প্রানী ও মানুষের উপর আলাদা আলাদাভাবে গবেষনা করে দেখেছেন যে , সজনে পাতার মধ্যে খারাপ কোলেস্টরল কমানোর ক্ষমতা রয়েছে।

রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করে : প্রতিদিন ১০০ গ্রাম পরিমান সজনে পাতা খাওয়ার মধ্যে যে পরিমান ভিটামিন  ‘এ ‘ পাওয়া যায় তাতে শরীরের অর্ধেক চাহিদা পূরন হয়ে থাকে। আর ভিটামিন ‘এ ‘ রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করা সহ শরীরের গুরুত্বপূর্ন অঙ্গগুলোকে স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে।

চুল পড়া কমায় এবং খুশকি দূর করে : সজনে পাতার সাথে সামান্য কিছু মেহেদি পাতা বেটে ঘন পেস্ট তৈরি করে মাথার ত্বকে লাগালে খুশকির সমস্যা দূর হয়ে যায়। খুশকির সাথে সাথে চুল পড়ার সমস্যার ও সমাধান হয়। এছাড়াও চুলের গোড়া মজবুত করে থাকে যা চুল পড়া কমানোর আর একটা কার্যকরী উপায়।

মায়ের বুকের দুধের পরিমান বাড়াতে সাহায্য করে : কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই সজনে পাতা মায়ের বুকের দুধ বাড়াতে সাহায্য করে। সন্তান প্রসবের পরে সজনে পাতা সামান্য লবন জলে সিদ্ধ করে ঘি দিয়ে ভেজে খেলে ,মায়ের বুকে দুধের পরিমান বাড়াতে সাহায্য করে। পুষ্টিবিদরা বলেছেন , গর্ভবতী মায়েদের জন্য প্রয়োজনীয় ক্যালসিয়াম ও আয়রনের সবটুকু্ সরবরাহ করতে প্রতিদিন ৬ টেবিল চা চামচ সজনে পাতার গুঁড়ো আবশ্যক।

মাথা ব্যথা কমায় : সজনে পাতা বেটে তার সাথে সামান্য গোলমরিচ গুঁড়ো মিশিয়ে কপালে প্রলেপ দিলে মাথা ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।

ঠান্ডা কাশি উপশম করে : ঠান্ডা কাশি নিরাময়ে সজনে পাতা বিশেষ ভূমিকা পালন করে। প্রতিদিন ১ চা চামচ সজনে পাতার রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেলে ঠান্ডা কাশি কমে যাবে।

পেটের সমস্যার সমাধান করে : পেটের বিভিন্ন জটিলতায় সজনে পাতা বিশেষ ভূমিকা পালন করে। মধু মেশানো এক চামচ সজনে পাতার রস এক গ্লাস ডাবের পানির সাথে ২-৩ বার খেলে কলেরা , আমাশা , ডায়রিয়া , কোলাইটিস ও জন্ডিস রোগ থেকে নিরাময় পাওয়া যায়।

পেটের সমস্যা, ঠান্ডা কাশি বা লিভারের সমস্যায় যোগাযোগ করুন কলিকাতা হারবাল অথবা ফোন করুনঃ 01763663333

আরো পড়ুন – থানকুনি পাতার উপকারিতা

আরো পড়ুন – মুলার উপকারিতা ও অপকারিতা কি?

Rate this post

Leave a Reply